মাশরুম খেলে কী হয়?

Spread the love
ফাইল ছবি

প্রতিদিন মাশরুম খেলে শরীরের গ্লুকোজ নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থার উন্নতি হয় এবং উপকারী জীবাণুর সংখ্যা বাড়ে। গ্লুকোজের নিয়ন্ত্রণের ফলে ডায়াবেটিসও নিয়ন্ত্রণে থাকে।

পেনসিলভ্যানিয়া স্টেট বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক মার্গারিটা টি ক্যান্টোর্নার বলেণ, গবেষণার জন্য ইঁদুরদের নিয়মিত মাশরুম খাইয়ে দেখা গেছে তাদের শরীরে মাইক্রোবস বা মাইক্রোবায়োটার কম্পোজিশন বদলে গেছে। অনেক পরিমাণ ফ্যাটি অ্যাসিড উৎপাদিত হয়েছে। বিশেষ করে সুসিনেট ও প্রোপায়োনেট।

জার্নাল অব ফাংশানাল ফুডস নামের ওই গবেষণায় প্রধাণত দুই ধরনের ইঁদুর ব্যবহার করা হয়েছে, এদের প্রতিদিন মাশরুম খাওয়ানো হত। একটি গ্রুপে ছিল মাইক্রোবায়োটা, অন্যরা ছিল জিরাম মুক্ত।

মাশরুম অন্ত্রের ব্যাকটেরিয়া মধ্যে এক টানা বিক্রিয়া সৃষ্টি করে। যার ফলে প্রিভোটেলার উৎপাদন বেড়ে যায়। প্রিভোটেলা হল এমন এক ব্যাকটেরিয়া যা প্রোপায়োনেট আর সুসিনেট উৎপাদন করে। এই অ্যাসিড গুলো মস্তিষ্কে এবং অন্ত্রের মধ্যবর্তী পথের জিনের অভিব্যক্তি ঘটায়। যা আবার গ্লুকোজ বা গ্লুকোনিওজেনেসিসের উৎপাদন পরিচালনা করতে সাহায্য করে।

মাশরুম, এই ক্ষেত্রে একটি প্রিবায়োটিক হিসাবে কাজ করে। এটি এমন একটি পদার্থ যা অন্ত্রে আগে থেকেই উপস্থিত উপকারি ব্যাকটেরিয়ার কাজে লাগে। প্রোবায়োটিক গুলো হল উপকারী ব্যাকটেরিয়া। যা পাচনতন্ত্রের মধ্যে থেকে যায়।

মাশরুমের এই প্রোবায়োটিক গুরুত্ব ছাড়াও গবেষণায় প্রমাণিত যে, খাদ্য এবং মাইক্রোবায়োটার মধ্যে নিবিড় যোগও রয়েছে।

ক্যান্টর্নার কথায়, এটা খুব স্পষ্ট যে খাবারে ছোটখাটো কোনও পরিবর্তন হলেই মাইক্রোবায়োটা পরিবর্তিত হয়

আমাদেরকন্ঠ/বিএইচএম

Related posts