শেরপুরে এসআই’র বিরুদ্ধে বাদীর ধর্ষণ মামলা

Spread the love

শেরপুর প্রতিনিধি: শেরপুর জেলার নকলা থানায় মো. সবুর উদ্দিন নামে এক সাব ইন্সপেক্টর (এসআই) এর বিরুদ্ধে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে।

ভুক্তভোগী নারী বৃহস্পতিবার (১৫ অক্টোবর) শেরপুর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে ধর্ষণের অভিযোগ একটি মামলা দায়ের করেছেন। নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক আখতারুজ্জামান মামলাটি আমলে নিয়ে সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে ব্যবস্থা নিতে পিবিআই-কে আদেশ দিয়েছেন।

মামলার বাদী পক্ষের আইনজীবি মোকলেছুর রহমান আকন্দ জানান ২০১৭ সালে নালিতাবাড়ী থানায় ওই বাদীর করা একটি শ্লীলতাহানীর মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ছিলেন নালিতাবাড়ী থানায় কর্মরত সাব ইন্সপেক্টর সবুর। মামলার তদন্ত করার সুবাধে দুজনের মধ্যে ঘনিষ্ট সম্পর্ক গড়ে উঠে। ঘনিষ্ঠতার এক পর্যায়ে বাদীর স্বামীর সাথে বিবাহ বিচ্ছেদ ঘটে। অভিযুক্ত এ পুলিশ কর্মকর্তা ভিকটিমকে বিবাহ করবে এমন প্রতিশ্রুতি দিয়ে অপরিচিত দুজন লোক নিয়ে নীল কাগজে লেখালেখি করে বিয়ে সম্পন্ন হয়েছে বলে জানিয়ে ধর্ষণ করে।

পরে ২০১৯ সালের ১৫ নভেম্বর তারিখে অভিযুক্ত সবুর ওই সাজানো স্ত্রীকে নিয়ে নালিতাবাড়ী পৌর শহরের উত্তর গড়কান্দা আনছার ক্যাম্প সংলগ্ন এক বাড়ী ভাড়া নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর পরিচয়ে বসবাস করতে থাকেন। পরে সবুর নকলা থানায় বদলী হয়ে গেলে চলতি মাসের এক তারিখে নকলা থানায় গিয়ে ভরণপোষণ দাবী করলে এসআই সবুর ভিকটিমকে বিবাহ করে নাই বলে সাফ জানিয়ে দেয়। ভিকটিম নারীর দাবী এসআই সবুর উদ্দিন নকল বিবাহের মাধ্যমে প্রতারনার আশ্রয় নিয়ে তাকে একাধিক বার ধর্ষণ করেছে।

পিবিআই ইন্সপেক্টর সৈয়দ মইনুল হোসেন জানান, এখনও আদালত হতে কোন কাগজ পায়নি। অভিযোগের কাগজ হাতে পেলেই প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে তিনি জানান।

আমাদেরকণ্ঠ/এসআই/মমিনুল বাশার বাবু

Related posts