Amader Kantho- Bangla Online News Portal and Bangladeshi online news source for Game, Binodon, politics, national, international, lifestyle, sports, and many more factors.

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০৯ ডিসেম্বর, ২০২১

Facebook Facebook Facebook Facebook

জাহাঙ্গীরের বিরুদ্ধে ১২০০ লাইসেন্স আটকে রাখার অভিযোগ  

আমাদের কণ্ঠ প্রতিবেদক:
প্রকাশিত: বৃহস্পতিবার, ২৫ নভেম্বর, ২০২১, ০১:৩১
ফাইল ছবি

গাজীপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র জাহাঙ্গীর আলম দায়িত্ব নেওয়ার পর ১ হাজার ২০০ ঠিকাদারের লাইসেন্স নবায়ন করেননি বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ভুক্তভোগী ঠিকাদারদের অভিযোগ, নিজের পছন্দমতো ঠিকাদারদের উন্নয়নকাজ পাইয়ে দেওয়ার জন্য স্বল্পসংখ্যক ঠিকাদারকে লাইসেন্স দিয়েছেন।

গাজীপুর সিটি করপোরেশনের একসময়ের প্রথম শ্রেণির ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান মৌসুমী ট্রেডার্সের মালিক আব্দুস ছাত্তার বলেন, গাজীপুর সিটি করপোরেশনে কমপক্ষে ১ হাজার ২০০ তালিকাভুক্ত ঠিকাদার রয়েছেন। গত তিন বছরে ওই সব ঠিকাদারের প্রতিষ্ঠানকে লাইসেন্স নবায়ন করে দেওয়া হয়নি।

আব্দুস ছাত্তার বলেন, ‘মেয়রের ভাই, আমিনুল, খোরশেদ এ রকম ১২-১৩টি ফার্ম তিন বছর ধরে গাজীপুর সিটি করপোরেশনের বিভিন্ন উন্নয়নকাজ করে। এখন আমাদের ফার্মগুলো যদি নবায়ন করে তাহলে আমাদের কাজ দিতে হবে। দরপত্র ছাড়তে হবে। কিন্তু তারা তা না করে কোটেশন দেখিয়ে বিল তোলেন।

ঠিকাদার ছাত্তার বলেন, ‘একটি লাইসেন্স নবায়নে প্রতিবছর ২ হাজার টাকা আয় হতো। সে হিসাবে করপোরেশন প্রতিবছর বিপুল পরিমাণ রাজস্ব থেকে বঞ্চিত হয়েছে।

একই রকম অভিযোগ করেন মেসার্স মাসুদ কনস্ট্রাকশনের ঠিকাদার শেখ মো. মাসুদ বলেন, সিটি করপোরেশনের তালিকাভুক্ত ঠিকাদার হয়েও গত তিন বছর লাইসেন্স নবায়ন করতে পারেননি। মেয়র জাহাঙ্গীর নতুন করে লাইসেন্স করে দিয়েছেন, কিন্তু পুরোনো লাইসেন্সের নবায়ন করেননি।

আনিকা ট্রেডার্সের মালিক আইনুদ্দীন তালুকদার বলেন, ‘সিটি করপোরেশন ৭০০ কিলোমিটার রাস্তা করেছে। তাঁদের আমার মতো স্থানীয় ঠিকাদারেরা চেনেন না। প্রতি ঈদে দুবার কাজের বিল দেওয়া হয়। আমরা বকেয়া বিলের টাকা ওঠাতে গেলে দেখি যাঁরা বিল নিতে আসেন, তাঁরা অপরিচিত। মেয়র তাঁর লোকদের মাধ্যমে কোটেশন দিয়ে কাজ সম্পন্ন করেন।’

এ ব্যাপারে গাজীপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র জাহাঙ্গীর আলম বলেন, ‘আজ আমি বেকায়দায় পড়ায় আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা বানোয়াট অভিযোগ করা হচ্ছে। কারও ফাইল আমার পর্যন্ত না এনে যদি আমাকে দোষারোপ করে, তাহলে আমি কী বলব? কেউ আমার কাছে ফাইল দেওয়ার পর সেটা আমি ফেরত পাঠিয়েছি, এমন ঘটনা কেউ বলতে পারবে না।

বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক ও প্রকাশক: মো. জিয়াউল হক
চেয়ারম্যান: মিসেস নাজমা হক
ঠিকানা: শাঁহ আলী টাওয়ার (৩য় তলা)
৩৩, কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ ।

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি ।
©২০২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । আমাদেরকণ্ঠ২৪ ডট কম, জিয়া গ্রুপের একটি প্রতিষ্ঠান ।
কপিরাইট রেজিস্ট্রেশন নাম্বার CRW-24516