Amader Kantho- Bangla Online News Portal and Bangladeshi online news source for Game, Binodon, politics, national, international, lifestyle, sports, and many more factors.

ঢাকা, সোমবার, ২১ ফাল্গুন ১৪৩০, ০৪ মার্চ, ২০২৪

Facebook Facebook Facebook Facebook

রমজানে বাজার নিয়ন্ত্রণের চেষ্টায় সরকার

আমাদের কণ্ঠ প্রতিবেদক:
প্রকাশিত: শুক্রবার, ১০ মার্চ, ২০২৩, ০৬:০৩
রমজানে বাজার

আসছে জাতীয় সংসদ নির্বাচন। এবারের রমজান সরকারের এই মেয়াদের শেষ রমজান। এ কারণে রমজানে দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে রাখাকে গুরুত্ব সহকারে নিচ্ছে সরকার। তবে বাজার নিয়ন্ত্রণে রাখার চেষ্টা কতটা সফল হবে তা নিয়ে সরকারের বিভিন্ন মহলেই রয়েছে শঙ্কা। এই শঙ্কা আরও বাড়িয়ে দিয়েছে রাশিয়া-ইউক্রেনের মধ্যকার যুদ্ধ পরিস্থিতি। সঙ্গে যুক্ত হয়েছে ডলার সংকটের কারণে পণ্য আমদানিতে এলসি জটিলতা। এরপরও রমজানে মানুষকে একটু স্বস্তিতে রাখার বিষয়টি মাথায় রেখে দুই মাস আগে থেকেই বাণিজ্য মন্ত্রণালয় এবং এর অধিনস্থ সংশ্লিষ্ট সংস্থাগুলো কাজ শুরু করেছে বলে একাধিক সূত্র নিশ্চিত করেছে। 

কী কী পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে

জানা গেছে, রমজানে বাজার নিয়ন্ত্রণে এরইমধ্যে ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ড্রাস্ট্রিজ (এফবিসিসিআই) সব পক্ষ নিয়ে বৈঠক করেছে। এলসি খোলা নিয়ে যে জটিলতা ছিল তা সহজ করেছে সরকার। রমজান শুরু হওয়ার আগেই বাজারে রমজানে চাহিদা বাড়ে এমন পণ্যের পর্যাপ্ত সরবরাহ রাখার ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। বিশেষ করে ভোজ্যতেল, চিনি, ছোলা, বিভিন্ন ধরনের ডাল ও খেজুরে সরবরাহ যাতে ঠিক থাকে তার ওপর নজর রাখা হয়েছে।

অন্যান্য বছরের মতো এবারও বাজার পর্যবেক্ষণ বা মনিটরিংয়ের জন্য বিশেষ ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। জানা গেছে, নিত্যপণ্যের দাম স্বাভাবিক রাখতে সরকারের ১০টি সংস্থা মাঠে থাকবে।  ১৫ পণ্যের দাম বেঁধে দিতে কমিটি করা হবে। এবার এক মাস আগে থেকেই বাজারে আছে টিসিবি।

বাতিল হতে পারে বাজার কমিটি

যতগুলো পর্যায়ে পণ্য হাত বদল হয় তার কোনও পর্যায়েই যাতে সেগুলো মজুদ না হয় তা নজরদারি করা হচ্ছে। এ বিষয়ে দেশের একাধিক গোয়েন্দা সংস্থার কাছ থেকে তথ্য নিয়ে নজরদারির কাজটি করা হচ্ছে। বাজার মনিটরিংয়ের অংশ হিসেবে এবার নতুন পদক্ষেপ হলো, যে বাজারে পণ্যের দাম লাগাম ছাড়া থাকবে সেই বাজার কমিটির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। বাজার কমিটি যেহেতু বাণিজ্য মন্ত্রণালয় থেকে অনুমোদন নেয়, তাই মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে আলোচনা করে দরকার হলে তাদের কমিটির অনুমোদন বাতিলের মতো পদক্ষেপ নেওয়া হতে পারে। বাজার কমিটি সক্রিয় থাকলে সেই বাজারে অতিরিক্ত মুনাফার লোভে মজুদ করা সম্ভব হবে না।

মূল্যস্ফীতির শঙ্কা

এদিকে রাশিয়া-ইউক্রেনের মধ্যকার যুদ্ধ পরিস্থিতি, একইসঙ্গে ডলার সংকটের কারণে পণ্য আমদানিতে এলসি জটিলতায় রমজানে বাংলাদেশের বাজারে পণ্যের দাম ৩০ শতাংশ পর্যন্ত বাড়ার শঙ্কা করছে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অধীনস্থ সংস্থা জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর। তারা বলছে, বাংলাদেশে রমজান মাসে চাহিদা বাড়ে এমন সব পণ্যের দাম গত বছরের তুলনায় এ বছর ২৫ থেকে ৩০ শতাংশ বাড়তি থাকবে। আন্তর্জাতিক বাজারে গত বছরের দামের সঙ্গে এ বছরের দাম যদি এক হয়, এরপরও ডলারের এক্সচেঞ্জ রেটের কারণে পণ্যের দাম ২৫ থেকে ৩০ শতাংশ বেশি হবে।

অপরদিকে পাইকারি ব্যবসায়ীরা বলছেন, ডলারের দাম বেশি থাকা এবং ছোট ব্যবসায়ীরা এলসি খুলতে না পারায় আমদানিনির্ভর পণ্যের আমদানি কমে গেছে। যার কারণে বন্দরে এসব পণ্যের সরবরাহ কম। এ কারণেও এ বছর রমজানে প্রয়োজনীয় নিত্যপণ্যের দাম বাড়তির দিকেই ধাবিত হবে। এরইমধ্যে বাজারে এসব পণ্যের দাম বেড়েছে।  চট্টগ্রাম কাস্টমস এর তথ্য অনুযায়ী জানা গেছে, ২০২১ সালের জুলাই মাস থেকে ২০২২ সালের জানুয়ারি পর্যন্ত সাত মাসে খেজুর আমদানি করা হয়েছিল ৪৬ হাজার মেট্রিক টন। আর ২০২২ সালের জুলাই থেকে ২০২৩ সালের জানুয়ারি পর্যন্ত একই সময়ে খেজুর আমদানি করা হয়েছে ৩১ হাজার মেট্রিক টনের বেশি। এই সময়ে এই পণ্যটি গতবারের তুলনায় ৩১ শতাংশ কম আমদানি করা হয়েছে।

তবে পণ্যের বাজারে কোনও ধরনের ঘাটতি নেই বলেও জানিয়েছে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর। তারা বলছে, বাজারে পণ্যের ঘাটতি না থাকলেও ব্যবসায়ীরা যোগসাজস করে পণ্যের দাম বাড়ায়। যাতে বাজার অস্থিতিশীল হয়।

সুলভ মূল্যে নিত্যপণ্য

বাজারে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অধীনস্থ টিসিবির মাধ্যমে সুলভ মূল্যে বিপণন সক্ষমতা বাড়ানো হয়েছে। এবছরই প্রথমবার দেশের এক কোটি পরিবারের কাছে কার্ডের মাধ্যমে রমজানের নিত্যপণ্য পৌঁছে দেবে টিসিবি। এর মধ্য দিয়ে কমপক্ষে দেশের পাঁচ কোটি মানুষ উপকৃত হবেন। পাশাপাশি বেসরকারি পর্যায়ে ভোগ্যপণ্য আমদানির বিষয়টিও নজরদারিতে আনার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। বিভিন্ন স্তরে চালের যৌক্তিক মূল্য ঠিক করতেও কাজ করছে বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও অধিদফতরের একটি যৌথ কমিটি।

ট্রেড অ্যান্ড ট্যারিফ কমিশন সূত্রে জানা গেছে, কমিটিকে বাজারে পণ্যের দাম যাচাই করে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে। সে প্রতিবেদন বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে সুপারিশ আকারে পাঠানো হবে। বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ই পরবর্তী করণীয় ঠিক করবে।

বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক ও প্রকাশক: মো. জিয়াউল হক
চেয়ারম্যান: মিসেস নাজমা হক
ঠিকানা: শাঁহ আলী টাওয়ার (৩য় তলা)
৩৩, কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ ।

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি ।
©২০২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । আমাদেরকণ্ঠ২৪ ডট কম, জিয়া গ্রুপের একটি প্রতিষ্ঠান ।
কপিরাইট রেজিস্ট্রেশন নাম্বার CRW-24516